জর্জিয়ার খবর

বঙ্গবন্ধুর ৯৫তম জন্মবার্ষিকী পালন করলো জর্জিয়া আওয়ামীলীগ
Published : 23.03.2015 11:25:28 pm

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৫তম জন্মবার্ষিকী পালন করলো জর্জিয়া আওয়ামীলীগ । গত ২২ মার্চ সন্ধায় আটলান্টার ডোরাভিলের ক্যালকাটা রেস্টুরেন্টে জর্জিয়া আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের উপস্থিতিতে কেক কাটা হয় । জর্জিয়া আওয়ামীলীগের সভাপতি আলী হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ রহমানের পরিচালনায় কয়েকজন প্রবীন নেতা বঙ্গবন্ধুর জন্ম,রাজনীতি ও আত্ম জীবনী নিয়ে আলোচনা করেন । আগামী ২৯ শে মার্চ আটলান্টার সেঞ্চুরী ব্লুবার্ডের মেরিয়ট হোটেলে আয়োজিত স্বাধীনতা দিবস পালনের প্রস্তুতি ও অগ্রগতি নিয়ে আলোচনায় দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সকলকে অবহিত করেন তাদের প্রস্তুতি এখন শেষ পর্যায়ে । আশা প্রকাশ করা হয় জর্জিয়ার সর্বস্তরের প্রবাসী গণ স্বাধীনতা দিবসের মনোজ্ঞ সংস্কৃতিক সন্ধায় উপস্থিত হবেন । তারা আরো জানান আমাদের সর্বস্তরের নেতাকর্মী অনুষ্ঠানকে সফল করে তুলবার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন । বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে জর্জিয়া আওয়ামীলিগের নেতারা আশা প্রকাশ করেন এই ঐক্যবদ্য কমিটি সকলকে নিয়ে আরো শক্তিশালী হয়ে কার্যক্রম পরিচালিত করবে এবং ঐক্য অটুট থাকবে । এদিকে জন্মদিনের সভায় জর্জিয়া আওয়ামীলীগের অনেক নেতাদের উপস্থিত হতে না দেখে অনেকে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন । উপস্থিত ব্যক্তিবর্গের মধ্যে ছিলেন জর্জিয়া আওয়ামীলীগের প্রতিষ্টাতা আহ্বায়ক সালাউদ্দিন জামিল ,জর্জিয়া আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি এম মাওলা দিলু ,জর্জিয়া আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও জর্জিয়া আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি রেজা করিম ,জর্জিয়া আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবির কাউসার ,সহ-সবাপতি শেখ জামাল ,যুগ্ম সম্পাদক মোশাররফ হোসেন ,এ এইচ রাসেল এছাড়া জর্জিয়া সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম ,সাংগঠনিক সম্পাদক রমেশ সাহা ও কোষাদক্ষ সোহরাব উদ্দিন প্রমুখ । সভা শেষে সকলে নৈশ ভোজে মিলিত হন ।

বিস্তারিত
ভেঙ্গে গেল জর্জিয়া বিএনপি পাল্টা কমিটি গঠন সভাপতি তওহিদ সা: সম্পাদক আবু নাসের মিলন

জর্জিয়া বি এন পি ঘুরে দাড়াতে গিয়ে প্রথম বারের মত ভাঙ্গনের মুখে পরে পাল্টা কমিটি গঠিত হয়েছে গত ২০ মার্চ শুক্রবার । জর্জিয়া বি এন পির সভাপতি হামিদুর রহমান চৌধুরী তওহিদ ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাসের মিলন নামে সাক্ষরিত এক বার্তায় জানান স্থানীয় কারী এন্ড কাবাব রেস্টুরেন্টে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল জর্জিয়া শাখার উদ্যোগে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কার্যকরী কমিটি সর্বসম্মতি ক্রমে গঠন করা হয় ।প্রকাশিত কমিটিতে আরো রয়েছেন সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মো : সামিম জাহান সম্রাট ,প্রচার সম্পাদক মো:মোর্শেদ আলম (কামরান) ছাড়াও সদস্য পদে রয়েছেন মহিউদ্দিন দুলাল ,আব্দুল জব্বার (মোহন)ও গোলাম রাজ্জাক । গত কয়েক মাস যাবৎ জর্জিয়া বি এন পির দলীয় কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছিল সকলের অংশ গ্রহণে এরই মধ্যে জর্জিয়া বি এন পির একটি অংশ বের হয়ে এসে পাল্টা কমিটি গঠন করেছে । জানা গেছে অচিরেই তারা পুর্নাঙ্গ কমিটি প্রকাশ করে দলীয় কর্মকান্ড পরিচালিত করবেন । জর্জিয়া জাতীয়তাবাদী দলের কমিটি অনুমোদনের জন্য যুক্তরাষ্ট্র বি এন পির অনুমোদনের প্রয়োজন রয়েছে কিনা তা জানা যায় নি । এ দিকে একই দিনে সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব শাকুর মিন্টুকে পুনরায় সভাপতি ও মোহাম্মদ রহমান আজাদকে সাধারণ সম্পাদক করে ৫৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়েছে । শাকুর মিন্টু ও আজাদের কমিটিতে বিভিন্ন পদে হামিদুর রহমান চৌধুরী তওহিদ,আবু নাসের মিলন সহ সকলের নাম রয়েছে তবে তওহিদ ও মিলন গঠিত কমিটিতে শাকুর মিন্টু ও আজাদের কমিটির কারো নাম দেখা যায়নি বা তাদের কে কোনো দায়িত্বে রাখা হবে কিনা তা জানা যায় নি ।

জর্জিয়া বিএনপির নতুন কমিটি শুকুর মিন্টু সভাপতি ও মোহাম্মদ আজাদ সাধারাণ সম্পাদক

আলহাজ্ব শুকুর মিন্টু সভাপতি ও মোহাম্মদ রহমান আজাদকে সাধারাণ সম্পাদক নির্বাচন করে জর্জিয়া বি এন পির নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে গত ২০ মার্চ শনিবার । সহ সভাপতি পদে আবু নাসের কাজমি, আজিজুল হাকিম, মোহাম্মদ আলি খান লোদী,মোহাম্মদ মামুন শরীফ, আমজাদ ও ইমদাদুল হুদা, । যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক পদে মোহাম্মদ আব্দুল জাব্বার, আবু নাসের মিলন, এইচ এম আবুল হাসেম, নবুয়ত বিকে মজলিস, মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান রুবেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আলী খান সজল, সহসাংগঠনিক এস এম আবু জাহেদ , অর্থ সম্পাদক হামিদুর রহমান তৌহিদ, সহ অর্থ মোহাম্মদ এ আলম , সাংস্কৃতিক সম্পাদক সৈকত প্রধান, সহ সাংস্কৃতিক সুমি সুলতানা , ক্রীড়া সম্পাদক রায়হান আহমেদ রাহী, সহক্রীড়া মোর্শেদ আলম,প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাহমুব আহমেদ, দপ্তর সম্পাদক সরফু চৌধুরি , সহকারী দপ্তর মোরশেদ আলম কামরান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা খোন্দকার ফাতেমা আকতার সহকারী নীতি আকসুমা। এছাড়া সদস্য মোহন জব্বার , সফিকুল হামিদ কামাল, মীর খালিদ, মাহমুদুল আহমেদ খান আপেল, মহিন উদ্দিন দুলাল, মোহাম্মদ খালিদ, আওলাদ হোসেন, এসএম গিয়াস উদ্দিন, বেলায়েত হোসেন পারভেজ, আরিফুর রহমান, হাসান খান , কাজী সাইফুল হক, সানোয়ার আহমেদ চৌধুরি ইমন, জাহাঙ্গীর খান, আবু হানিফ তালুকদার, আলী আলম সোহাগ, তানভির আহমেদ, সাফি আহমেদ, জায়দুর রহমান মিঠু, সাজ্জাদ হোসেন, সাব্বির আহমেদ, মোস্তফা কামাল মাহমুদ, আহমেদ মানিক, শাহনেওয়াজ হোসেন, মোহাম্মদ রহমান বাবু, নওরিন মাহবুব, মোহাম্মদ আলভি আফ্রিদি ও জুয়েল মিয়া। উপদেষ্টা মন্ডলী রয়েছেন, মোহাম্মদ জামান ঝন্টু, মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন ভুঁইয়া, মোহাম্মদ রফিক হাসান খান, মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন, আজহারুল ইসলাম ফারুক, ডিউক খান, ডাঃ নাঈম বাশার, নাহিদুল খান সাহেল ও সৈয়দ মোস্তাকিম বেঞ্জু। গুইনেটের কারী এন্ড কাবাব রেষ্টুরেন্টে জর্জিয়া বিএনপির এক সভায় এই নতুন কমিটির গঠণ করা হয়। কমিটি গঠন কালে উপস্থিত ছিলেন জর্জিয়া বিএনপির উপদেষ্টা মোহাম্মদ জামান ঝন্টু, জর্জিয়া বিএনপির উপদেষ্টা ও ফোবানা চেয়ারম্যান ডিউক খান ও জর্জিয়া বিএন পির সাবেক সভাপতি জসীম উদ্দিন । জর্জিয়া বি এন পির এই নয়া কমিটিতে পুন: নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক সভাপতি মিন্টু রহমান এছাড়া নতুন কিছু মুখ কমিটিতে নেয়া হয়েছে যা কমিউনিটিতে পরিচিত ও দলে নিবেদিত প্রাণ ।

প্রবাস

টিভি উপস্থাপক বরখাস্ত : মিশেল ওবামাকে নিয়ে মন্তব্য
Published : 13.03.2015 04:35:07 pm

মার্কিন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামাকে জনপ্রিয় মুভি ‘প্লানেট অব দি এপস’র একটি চরিত্রের সঙ্গে তুলনা করায় যুক্তরাষ্ট্রে স্প্যানিশ ভাষার টেলিভিশন ইউনিভিশনের এক নামী উপস্থাপককে বরখাস্ত করা হয়েছে।ইউনিভিশন বৃহস্পতিবার জানায়, বুধবার সন্ধ্যায় টেলিভিশনে ‘এল গর্দো ওয়াই লা ফ্লাকা’ অনুষ্ঠান চলাকালে ভেনিজুয়েলার উপস্থাপক রডনার ফিগুয়েরোয়া মার্কিন ফার্স্ট লেডি সম্পর্কে এ মন্তব্য করেন। সঞ্চালকরা যখন একজন মেক-আপ শিল্পী যিনি নিজেকে মিশেল ওবামাসহ বিভিন্ন নারী সেলিব্রেটির রুপদান করেছিলেন তাকে নিয়ে আলোচনার সময় ওই টিভি উপস্থাপক এ মন্তব্য করেন।ফিগুয়েরোয়া স্প্যানিশ ভাষায় ‘মিশেল ওবামাকে প্লানেট অব দি অ্যাপস’র একটি চরিত্রের সঙ্গে তুলনা করেন। এর পরপরই ইউনিভিশন ফিগুয়েরোয়াকে বরখাস্ত করে।ইউনিভিশন এক বিবৃতিতে জানায়, গতকাল বিনোদনমূলক ‘এল গর্দো ওয়াই লা ফ্লাকা’ অনুষ্ঠান চলাকালে রডনার ফিগুয়েরোয়া মার্কিন ফার্স্ট লেডি সম্পর্কে যে মন্তব্য করেন তা পুরোপুরি নিন্দনীয়।বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘ফিগুয়েরোয়াকে বরখাস্ত করা হয়েছে।’ফিগুয়েরোয়ার ডাক নাম ‘এল ফ্যাশোনিস্তা’। তিনি একজন ফ্যাশন বিশেষজ্ঞ হিসেবে ইউনিভিশনে বেশ নাম করেন। -বাসস।

বিস্তারিত
ফার্গুসনের পুলিশপ্রধান পদত্যাগ করলেন

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের প্রতিবেদনে মিজৌরি অঙ্গরাজ্যের ফার্গুসনের পুলিশের মধ্যে বর্ণবাদী আচরণের তথ্যপ্রমাণ উঠে আসায় পদত্যাগ করেছেন শহরটির পুলিশপ্রধান থমাস জ্যাকসন। ১৯ মার্চ থেকে তাঁর পদত্যাগ কার্যকর হবে। আজ বৃহস্পতিবার এএফপির এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়। গত বছরের আগস্ট মাসে নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ মাইকেল ব্রাউন পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার পর ব্যাপক প্রতিক্রিয়া হলে নাগরিক অধিকার-সংক্রান্ত এই অনুসন্ধান শুরু করা হয়। ৪ মার্চ প্রতিবেদনটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হয়। জ্যাকসন তাঁর পদত্যাগপত্রে লেখেন, ‘আমি দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, আমি পদত্যাগ করছি। এই নগর ও নগরবাসীর সেবা করতে পারাটা আমার জন্য সম্মান ও সুযোগের বিষয় ছিল।’১৮ বছর বয়সী মাইকেল ব্রাউন নিহত হন এক শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তার গুলিতে। ওই ঘটনার পর ফার্গুসন শহরতলির গণ্ডি ছাড়িয়ে সারা দেশে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায়। ফার্গুসনের সংখ্যাগরিষ্ঠ অধিবাসী কৃষ্ণাঙ্গ হলেও স্থানীয় পুলিশ বাহিনী শ্বেতাঙ্গপ্রধান। জনপদটিতে কৃষ্ণাঙ্গরা প্রায়ই পুলিশের অন্যায্য আচরণের শিকার হয় বলে বরাবরের অভিযোগ। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার পদত্যাগ করেন ফার্গুসন উপশহরের প্রধান নির্বাহী জন শো। বিচার বিভাগের প্রকাশিত প্রতিবেদনে শহরটির প্রশাসনের যে কয়জনের তীব্র সমালোচনা করা হয়, শো তাঁদের মধ্যে অন্যতম। এর আগে গত সোমবার ওই প্রতিবেদনের একই ধরনের অভিযোগের ভিত্তিতে শহরের পৌর বিচারকও পদত্যাগ করেন।

সিনেটর বার্নি প্রেসিডেন্ট পদে প্রার্থী !

যুক্তরাষ্ট্রে ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিতব্য প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন সিনেটর বার্নি সেন্ডারস। ওয়াশিংটন ন্যাশনাল প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীতার ঘোষণা করেন যুক্তরাষ্ট্রের বর্ষীয়ান এ রাজনীতিবিদ।যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন নির্বাচনে প্রার্থীতা ঘোষণা করে সিনেটর বার্নি সেন্ডারস বলেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে ধনী-গরীবের ব্যবধান দূর করতে হবে। সকল নাগরিকের পর্যাপ্ত সুবিধা নিশ্চিত করার মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের একটি নতুন রূপ দিতে চান তিনি। ইরাক এবং আফগানিস্তানের যুদ্ধ জড়ানের সমালোচনা করে বার্নি সেন্ডারস বলেন, এ সকল যুদ্ধ যুক্তরাষ্ট্রের কোনো কল্যাণ বয়ে আনে নি। বর্তমানে জঙ্গী সংগঠন আইএস মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্রের গৃহীত পদক্ষেপের বিরোধিতা করে তিনি বলেন, এ সংগঠনটি মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্র না জড়িয়ে সৌদি আরবসহ আরবদেশগুলোর ওপর চাপ প্রয়োগ করা উচিত ছিলো।সিনেটর বার্নি সেন্ডারস দীর্ঘ ২৬ বছর স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দীর্ঘ সময় থাকা একমাত্র স্বতন্ত্র কংগ্রেসম্যান। যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চ কক্ষ সিনেটর পদে দুইবার নির্বাচিত হন তিনি। বার্লিনটনের নির্বাচিত মেয়র হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। বার্লিনটন সিটির প্রাক্তন মেয়র সিনেটর বার্নি সেন্ডারস হার্ভাড ইউনির্ভাসিটির কেনেডি স্কুল অব গর্ভমেন্ট এবং হেমিল্টন কলেজে শিক্ষকতা করেন।

বাংলাদেশ

চট্টগ্রামে আবার প্রার্থী হচ্ছেন মঞ্জুর
Published : 25.03.2015 12:18:11 pm

বিএনপি এখনও সিদ্ধান্ত না জানালেও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে প্রার্থী হচ্ছেন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এম মঞ্জুর আলম।বুধবার ‘চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলন’র ব্যানারে এক সংবাদ সম্মেলনে বর্তমান মেয়র মঞ্জুরকে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়, যে ফোরাম থেকে আগেরবারও নির্বাচনী লড়াইয়ে নেমেছিলেন তিনি।সন্ধ্যায় নগরীর জিইসি কনভেশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত ওই সংবাদ সম্মেলনে মঞ্জুর ছিলেন না। বিএনপির কোনো নেতাকেও দেখা যায়নি সেখানে। এই সংবাদ সম্মেলনের আগে সকালে নগর ভবনে মঞ্জুর সাংবাদিকদের বলেছিলেন, “গত ২২ বছর ধরে জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি। দল যদি চায়, আল্লাহর হুকুম আর সবকিছু অনুকূলে থাকলে আমি নির্বাচন করব।”সন্ধ্যার সংবাদ সম্মেলনের পর যোগাযোগ করা হলে তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “হ্যাঁ, আমি চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের প্রার্থী।”বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদে থেকে দলীয় সিদ্ধান্তেই কি নির্বাচন করছেন- জানতে চাইলে মঞ্জুর বলেন, “এই বিষয়ে পরে কথা বলব।”মঞ্জুর বর্তমান মেয়র হওয়ায় পদত্যাগ করেই তাকে নির্বাচন করতে হবে। আর সেই প্রস্তুতিও তার রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। সকালে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “ম্যাডাম যদি আমাকে নির্বাচন করার নির্দেশ দেয়, তাহলে আমি পদত্যাগ করব। দলীয় সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত পদত্যাগ সম্পর্কে কিছু বলা যাচ্ছে না।”সংবাদ সম্মেলনে কেউ না থাকলেও চট্টগ্রাম বিএনপির শীর্ষনেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিএনপি নির্বাচনে গেলে মঞ্জুরকেই মেয়র পদে সমর্থন দেওয়া হবে।তবে মঞ্জুরের বিরুদ্ধে স্থানীয় পর্যায়ে কর্মীদের অসন্তোষ রয়েছে। দলীয় কর্মসূচিতে তার নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে মঙ্গলবার তার কুশপুতুলও পুড়িয়েছেন ছাত্রদলের এক দল নেতা-কর্মী।ঢাকায় সিইসির সঙ্গে খালেদা জিয়ার এক দল পরামর্শকের সঙ্গে বৈঠক এবং রাজধানীর দুই সিটি করপোরেশনে বিএনপির দুই নেতার মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পরপরই মঞ্জুরের প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা এল।সংবাদ সম্মেলনে মঞ্জুরকে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের আহ্বায়ক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রকৌশলী আবু সুফিয়ান, অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, অধ্যাপক সালেহ জহুর, অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট শামসুদ্দিন আহমেদ মির্জা প্রমুখ।লিখিত বক্তব্যে আবুল কালাম আজাদ বলেন, “চট্টগ্রাম নগরবাসী প্রতিনিধি নির্বাচনের সুযোগ পেয়েছে। মহানগরীর উন্নয়ন কাজের ধারাবাহিকতা রক্ষার স্বার্থে পুনরায় মেয়র পদে মঞ্জুর আলমের নাম ঘোষণা করছি।”বিএনপি সমর্থিত পেশাজীবীদের নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের ব্যানারে ২০১০ সালেও মঞ্জুর আলমকে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছিল। তারপরই বিএনপির পক্ষ থেকে তাতে সমর্থন জানানো হয়।আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে কয়েকবার ওয়ার্ড কমিশনার নির্বাচিত হওয়া মঞ্জুর ওই নির্বাচনে তার রাজনৈতিক ‘গুরু’ এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে হারানোর মধ্য দিয়েই বিএনপিতে যুক্ত হন।মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হন মঞ্জুর।দলীয় কার্যক্রমে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগের পাশাপাশি বন্দর নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ব্যর্থতার সমালোচনাও সইতে হচ্ছে মঞ্জুরকে। তবে বুধবার বর্তমান সিটি কর্পোরেশনের শেষ সাধারণ সভায় মঞ্জুর দাবি করেছেন, নগরীতে এখন জলাবদ্ধতা নেই, ‘জলজট’ হয়। আর তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির ৫৭ দফার অধিকাংশই বাস্তবায়িত হয়েছে।মেয়র পদে প্রার্থী হলে মঞ্জুরকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিনের সঙ্গে।নির্বাচনে প্রার্থী হতে হলে ২৯ মার্চ মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। সেক্ষেত্রে মঞ্জুরকে সেদিনের মধ্যে পদত্যাগ এবং মনোনয়নপত্র কিনতে হবে।

বিস্তারিত
খালেদা জিয়াসহ বিএনপির ২১ নেতাকে রাষ্ট্রপতির আমন্ত্রণ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ দলটির শীর্ষস্থানীয় ২১ নেতাকে বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।বৃহস্পতিবার বঙ্গভবনে অনুষ্ঠিতব্য রাষ্ট্রীয় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বুধবার একটা ৪৫ মিনিটে রাষ্ট্রপতির পিআর রফিকুল ইসলাম বাবু ও গেস্টারেটর অপারেটর আনোয়ার হোসেন বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে এসব আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেন। খালেদা জিয়ার মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শাসসুদ্দিন দিদার চেয়ারপারসনের পক্ষে আমন্ত্রণপত্র গ্রহণ করেন।

৩ সিটিতে এপ্রিলে ভোটের পরামর্শ পুলিশ প্রধানের

বিএনপি জোট অবরোধ-হরতাল চালিয়ে গেলেও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে দাবি করে ৩০ এপ্রিলের মধ্যে তিন সিটি কর্পোরেশনে ভোট আয়োজনের মত দিয়েছেন পুলিশ প্রধান এ কে এম শহীদুল হক।সোমবার নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে একদিনে ভোট হবে বলেও জেনেছেন তিনি।এই তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে আইজিপির সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ। ঢাকার পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়াও ছিলেন বৈঠকে।তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে সার্বিক পরিস্থিতি সিইসির কাছে তুলে ধরা হয় বলে জানিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক। যে কোনো ভোটে আইনশৃঙ্খলার মূল দায়িত্ব পালন করে পুলিশ।ইসি থেকে বেরিয়ে আইজিপি সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা দ্ব্যর্থহীনভাবে বলতে চাই, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নির্বাচনের অনুকূলে। সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ রয়েছে। কমিশন নির্বাচনের জন্য যে ধরনের সহায়তা চাইবে, আমরা সর্বাত্মক সহায়তা করব।” “মে মাসের শুরুতে ক্রিকেট (পাকিস্তান দলের সফর) রয়েছে। এর আগে এপ্রিলের ৩০ তারিখের মধ্যে ভোট হলে আমাদের সুবিধা হবে। কমিশন আমাদের প্রস্তাব বিবেচনা করবে বলে জানিয়েছে,” বলেন তিনি।নির্দলীয় সরকারের অধীনে আগাম জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনকারী বিএনপি জোট হরতাল-অবরোধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিলেও ঢাকা ও চট্টগ্রামের নাশকতার ঘটনা অনেকটাই কমেছে। তবে বিক্ষিপ্ত বোমাবাজি হচ্ছে।ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন একদিনে করার কথা ইসি জানিয়েছে বলে শহীদুল হক জানান, যদিও এর পক্ষে নন তারা।“আমরা ঢাকা ও চট্টগ্রামে আলাদাভাবে দুই দিনে (ভোট) চেয়েছিলাম। কিন্তু কমিশন একদিনে করতে চায়। খুবসম্ভব একদিনে এ তিনটি সিটি নির্বাচন হবে।”পুলিশের সঙ্গে কমিশনের বৈঠকের আগে ইসি সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, ভোটের জন্য তারা সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন। এখন সুবিধাজনক সময়ে কমিশন সভা করে তফসিল ঘোষণা করতে পারে।আগামী জুনের মধ্যে এই তিন সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচন করতে চায় ইসি। সেক্ষেত্রে এইচএসসি পরীক্ষার সময়টি নিয়ে ভাবনায় তারা। এইচএসসি পরীক্ষা ১ এপ্রিল শুরু হচ্ছে। এইচএসসি পরীক্ষার ফাঁকে এপ্রিলের শেষভাগ থেকে মধ্য জুনের মধ্যে এ তিন সিটির নির্বাচন করার কথা ইতোমধ্যে সিইসি জানিয়েছেন। এপ্রিলের শেষভাগে ২৫, ২৮, ৩০ এপ্রিল এবং মে মাসের শুরুতে ৪, ৭ ও ১০ ও ১২ মে পরীক্ষা রয়েছে। যে কোনো একদিন পরীক্ষা পুনর্বিন্যাস করে ৫ দিনের ফাঁকে ভোট নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির।এই বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে শিগগিরই তফসিল ঘোষণার প্রস্তুতিও চলছে কমিশনে।পরিস্থিতি পর্যালোচনায় গত বৃহস্পতিবার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক করেছিল নির্বাচন কমিশন। প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচিতে ব্যস্ত থাকায় ওই সভায় আইজিপি উপস্থিত থাকতে পারেননি। তাই তার সঙ্গে সোমবার এই বৈঠক হল।

ভিডিও